Wednesday, 20 January 2021

দিল্লিতে ঐতিহাসিক কৃষক আন্দোলনের পাশে দাঁড়াল রাষ্ট্রায়ত্ব সেইল-আরআইএনএল এর ইস্পাত শ্রমিক-আধিকারিকরা : এনজেসিএর বৈঠক ব্যর্থ,সর্বাত্মক লড়াই এর ডাক সিআইটিইউ-র ।

 


দুর্গাপুর,২০শে জানুঃ মোদি সরকারের দানবীয় ৩ কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লি সহ সারা দেশে চলছে  ঐতিহাসিক কৃষক আন্দোলন । প্রচণ্ড শীতের মধ্যে দিল্লিতে ঢোকা-বের হওয়ার ৭টি প্রান্তের মূল রাস্তার সব কটিতে আন্দোলনরত কৃষকরা অবস্হান করছেন।

 গতকাল,দুর্বার কৃষক আন্দোলন কে সমর্থন জানিয়ে  দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা দুর্গাপুর মিশ্র ইস্পাত কারখানার শ্রমিক-আধিকারিক সহ অন্যান্যদের কাছে সংগৃহীত ৬০,০০০ টাকা নতুন দিল্লিতে সারা ভারত কৃষক সভার কেন্দ্রীয় দফতরে গিয়ে সারা ভারত কৃষক সভার সর্বভারতীয় সম্পাদক হান্নান মোল্লার হাতে তুলে দিলেন হিন্দুস্হান স্টিল এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন(সিআইটিইউ)-র নেতৃবৃন্দ। সেখানেই ভিলাই স্টীল প্ল্যান্ট সহ ইস্পাত শিল্পের অন্যান্য ইউনিটের সিআইটিউ-ভুক্ত ট্রেড ইউনিয়নগুলোর পক্ষ থেকে আরো মোট ৫০,০০০ টাকাও তুলে দেওয়া হয়। ভাইজাগ স্টীল প্ল্যান্টের সিআইটিইউ ভুক্ত ট্রেড ইউনিয়ন গুলি ৩,৫০,০০০ টাকা এই আন্দোলনে পাঠিয়েছে।আগেই   লক্ষ টাকার বেশি অর্থ সিপিআই(এম) এর দুর্গাপুর ইস্পাত এরিয়া কমিটি দুর্গাপুর পূর্বের বিধায়ক সন্তোষ দেবরায়ের পক্ষ থেকে এই আন্দোলনের সমর্থনে পাঠানো হয়েছে।

সিআইটিউ' সর্বভারতীয় সম্পাদক তপন সেন সহ ইস্পাত শ্রমিক আন্দোলনের পক্ষ থেকে ছিলেন  বিশ্বরূপ ব্যানার্জী, ললিত মোহন মিশ্র, সৌরভ দত্ত ,সৌরেন চ্যাটার্জি,অযোধ্যা রামু সুরেশ।

কৃষক আন্দোলনে পাশে দাঁড়ানোর জন্য আন্দোলনের পক্ষ থেকে সেইল-আরআইএনএল এর ইস্পাত শ্রমিক-আধিকারিকদের অভিনন্দন জানান হান্নান মোল্লা।“এই কৃষক আন্দোলনের পাশে থাকাটা শ্রমিক তথা সাধারণ মানুষের  কর্তব্য,দায়বদ্ধ"- বলে মন্তব্য করেছন তপন সেন ।পরে দিল্লির সীমান্তে উত্তরপ্রদেশেরগাজিয়াবাদ জেলার মোহনপুরের কাছে গাজিপুরে ইস্পাত শ্রমিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ আন্দোলনরত কৃষকদের সাথে কথা বলেন ।

  এদিকে আজ দিল্লিতে অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রায়ত্ব সেইল-আরআইএনএল এর ইস্পাত শ্রমিকদের বেতন-চুক্তির বৈঠক এনজেসিএস এর আলোচনা কোন ফয়সালা ছাড়াই শেষ হয় ।উল্লেখ্য যে গত ২০১৭ সালের ১লা জানুঃ থেকে রাষ্ট্রায়ত্ব সেইল-আরআইএনএল এর ইস্পাত শ্রমিকদের বেতন-চুক্তি বকেয়া পড়ে আছে।  সিআইটিইউ এর পক্ষ থেকে কর্তৃপক্ষের দেওয়া ১০-বছর মেয়াদের বেতন-চুক্তির প্রস্তাব দৃঢ় ভাবে নাকচ করা হয় ও বর্তমানের ৫-বছর মেয়াদের বেতন-চুক্তি বহাল রাখার দাবি জানানো হয় । একই সাথে সিআইটিইউ এর পক্ষ থেকে ঠিকা শ্রমিকদের বেতন-চুক্তিতে অন্তর্ভূক্তি,৬% হরে পেনশন, ২০১৭ সালের ১লা জানুঃ থেকে এরিয়ার,বিনা সিলিং এর গ্র্যাচুইটি সহ অন্যান্য দাবি জানানো হয় । যদি অবিলম্বে যথাযথ দাবি মানা না হয়,তবে সিআইটিইউ এর পক্ষ ইস্পাত শিল্পে সর্বাত্মক আন্দোলন করার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে ।












Monday, 18 January 2021

অবিলম্বে বেতন-চুক্তির দাবিতে সিআইটিইউ এর ডাকে দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানায় দফায় দফায় শ্রমিক বিক্ষোভ ।

 


দুর্গাপুর,১৮ই জানুঃ :কেন্দ্রিয় রাষ্ট্রায়ত্ব ইস্পাত উৎপাদনকারী সেইল ও আরআইএনএল এর বেতন-চুক্তি ২০১৭ সাল থেকে বকেয়া পড়ে আছে । এর ফলে হাজার হাজার স্হায়ী ও ঠিকা ইস্পাত শ্রমিক আর্থিক ভাবে নিদারুন ক্ষতিগ্রস্হ হচ্ছেন । অবিলম্বে বেতন-চুক্তির দাবিতে সিআইটিইউ এর নেতৃত্বে সেইল ও আরআইএনএল-এ ইস্পাত শ্রমিকরা আন্দোলন গড়ে তুলেছেন । আজ হিন্দুস্হান স্টিল এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন (সিআইটিইউ) এর ডাকে সকাল থেকে দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানায় দফায় দফায় শ্রমিক বিক্ষোভ । অবিলম্বে বেতন-চুক্তি,ঠিকা শ্রমিকদের বকেয়া প্রদান,উচ্ছেদ ও ঠিকা শ্রমিকদের অবিলম্বে কাজে বহাল,কোভিডে মৃত ইস্পাত শ্রমিকদের পোষ্যের চাকরী সহ বিভিন্ন দাবিতে সকালে প্রথমে অর্জুন মূর্তির সামনে শ্রমিকরা বিক্ষোভ দেখান । পরে শ্রমিকরা ইডি(ওয়ার্কস)-এর দপ্তরে মিছিল করে যান ও বিক্ষোভ সমাবেশে যোগদান করেন । সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিশ্বরূপ ব্যানার্জি, উজ্বল গণ,সীমান্ত চ্যাটার্জি ও প্রদ্যুৎ মুখার্জি । সমাবেশ চলাকালীন কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি-সম্বলিত স্মারকলিপি জমা দেন ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ ।









Tuesday, 17 November 2020

২৬শে নভেম্বর সাধারন ধর্মঘটের সমর্থনে ইস্পাত শ্রমিকদের নিবিড় প্রচার ।

 


দুর্গাপুর,১৭ই নভেঃ : আগামী  ২৬শে নভেম্বর দেশ জোড়া সাধারন ধর্মঘটের সমর্থনে দুর্গাপুর ইস্পাত,অ্যালয় স্টিল প্ল্যান্ট ও ইস্পাতনগরীতে সিআইটিইউ এর উদ্যোগে চলেছে নিবিড় প্রচার । মোদি সরকারের কর্পোরেট-ঘেঁষা বেসরকারীকরন নীতির ফলে সমূহ বিপদের মুখে দাঁড়িয়ে আছে রাষ্ট্রায়ত্ব ইস্পাত উৎপাদক সংস্হা সেইল-ভুক্ত অ্যালয় স্টিল প্ল্যান্ট ও দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার শ্রমিকরা। ৫-বছর মেয়াদি বেতন-চুক্তি ২০১৬ সালে শেষ হলেও এখন নতুন বেতন-চুক্তি হয় নি । এমনকি পুরাতন বেতন-চুক্তির বহু বিষয় এখনো বকেয়া পড়ে আছে। অ্যালয় স্টিল প্ল্যান্টের বেসরকারীকরনের প্রস্তাব প্রবল শ্রমিক আন্দোলনে চাপে এখন কার্যকরী না হলেও বাতিল হয় নি । সেইলের মধ্যে উৎপাদনশীলতায় পয়লা নম্বর হলেও দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার আধুনিকীকরন ও সম্প্রসারনের জন্য বরাদ্দ প্রায় নেই । নতুন নিয়োগ বন্ধ । উল্টে স্হায়ী ধরনের কাজের সাথে যুক্ত ঠিকা শ্রমিকদের চুক্তি লঙ্ঘন করে  দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার স্ল্যাগ ব্যাঙ্ক থেকে ছাঁটাই করা হয়েছে ।সমান তালে চলছে অন্যান্য ঠিকা শ্রমিকদের ছাঁটাই । এই সবেরই বিরুদ্ধে সহ ধর্মঘটের মূল  দাবিতে এবং অবিলম্বে লোক্যাল ট্রেন চালানোর দাবীতে আজ সকালে দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার মেইন গেট ও ২নং গেটে এবং অ্যালয় স্টিল প্ল্যান্টের মেইন গেটে সিআইটিইউ এর ডাকে দলে দলে ইস্পাত শ্রমিক জড়ো হয়ে ২৬শে নভেম্বর দেশ জোড়া সাধারন ধর্মঘটের সমর্থনে শ্লোগানে গলা মেলান । এদিকে ধর্মঘটের সমর্থনে কারখানা দুটির বিভাগে বিভাগে  হিন্দুস্হান স্টিল এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন (সিআইটিইউ ) এর পক্ষ থেকে গ্রুপ সভা সংগঠিত করা হচ্ছে বলে ইউনিয়নের পক্ষ থেকে জানিয়েছেন বিশ্বরূপ ব্যানার্জি ।









Monday, 12 October 2020

সংকীর্ণ জাতীয়তাবাদী-সাম্রাজ্যবাদী-কর্পোরেটপন্হীদের অশুভ মৈত্রী দেশে ফ্যাসিবাদের উথ্থানের পথ প্রশস্ত করছে : আভাস রায়চৌধুরী।

 


দুর্গাপুর,১২ই অক্টোঃ : আজ সন্ধ্যায় ইস্পাতনগরীর বি.টি.রণদিভে ভবনের উন্মুক্ত মঞ্চে হিন্দুস্হান স্টিল এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন(সিআইটিইউ) এর উদ্যোগে আয়োজিত ,” পরিযায়ী শ্রমিক থেকে কৃষি বিল –বিজেপির ধারাবাহিক জনবিরোধী নীতি বনাম শ্রমিক শ্রেনীর সংগ্রাম “- শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথা বলেন সিপিআই-এম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য । তিনি আরও বলেন যে বহুত্ববাদী জাতীয়তাবাদ দেশে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্ম দিয়েছিল,স্বাধীন ভারতের সংবিধানের,স্বয়ম্ভর অর্থনীতি,গনতান্ত্রিক ও শ্রমিকশ্রেনীর অধিকারের ভিত্তি স্হাপন করছে তার বিপরীতি সংকীর্ণ জাতীয়তাবাদ সেই ভিত কে ধ্বংস করে ভারত কে সাম্রাজ্যবাদী-কর্পোরেট শক্তির মুনাফার অবাধ মৃগয়া ক্ষেত্রে পরিনত করতে চাইছে । চাইছে শ্রমিক-কৃষক-খেটে খাওয়া মানুষ কে অবাধ শোষনের বলি করতে । রাজনৈতিক খোলনলচে বদলে ফ্যাসিবাদ কায়েম করতে । এর বিরুদ্ধে শ্রমিক শ্রেনীর লাগাতর সংগ্রাম বিশেষ মাত্রা পেতে চলেছে আগামী ২৬শে নভেম্বর দেশ ব্যাপি সাধারন ধর্মঘটের মাধ্যমে । তিনি এই ধর্মঘট কে চূড়ান্ত ভাবে সফল করার আবেদন জানান ।

    এর আগে বক্তব্য রাখেন বিশ্বরূপ ব্যানার্জি ।আভাস রয় চৌধুরী কে সম্বর্ধনা জানিয়ে ইউনিয়নের ৫০-বছরের সংগ্রামী ইতিহাসের স্মারক গ্রন্হ টি তার হাতে তুলে দেন দুর্গাপুর ( পূর্ব ) এর বিধায়ক সন্তোষ দেবরায় ।সভাপতিত্ব করেন আর.পি.গাঙ্গুলী ।



















 

Sunday, 11 October 2020

কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে ইস্পাতনগরীতে পার্টির ডাকে বিশাল মিছিল ।

 


দুর্গাপুর,১১ই অক্টোঃ : আজ বিকালে,সিপিআই-এম এর দুর্গাপুর ইস্পাত ২ এরিয়া কমিটির ডাকে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে এক বিশাল মিছিল তিলক ময়দান থেকে শুরু হয়ে বি-জোন ও সি-জোনের বিভিন্ন রাস্তা ঘুরে সেপকো কলোনীতে শেষ হয়। ক্রমবর্ধমান দ্রবমূল্য বৃদ্ধি,করোনা অতিমারীর সময় স্বাস্হ্য সুরক্ষা দিতে ব্যর্থতা,সর্বনাশা কৃষি আইন ও সর্বনাশা শ্রম আইন সংশোধনী,রাষ্ট্রায়ত্ব সংস্হা বেসরকারীকরন সহ অন্যান্য  কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে ও আয়কর সীমার নীচে বসবাসকারী পরিবার পিছু প্রতি মাসে ৭৫০০ টাকা,মাথা পিছু ১০ কেজি চাল/গমের দাবি সহ অন্যান্য দাবিতে আজকের মিছিল হয়। মিছিলে ছিলেন স্বপন সরকার,সন্তোষ দেবরায়,আল্পনা চৌধুরি সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ।

Saturday, 10 October 2020

প্রতিবন্ধী এবং উচ্ছেদ ঠিকা শ্রমিক পরিবারের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের সম্বর্ধনা ।

 


দুর্গাপুর,১০ই অক্টো : আজ বিকালে ইস্পাতনগরীর ট্রাঙ্ক রোডে চিত্তব্রত মজুমদার ভবনে সিপিআই-এম এর দুর্গাপুর ইস্পাত ১ এরিয়া কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিবন্ধী এবং রাজনৈতিক কারনে দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা থেকে উচ্ছেদ ঠিকা শ্রমিক পরিবারের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের সম্বর্ধনা দেওয়া হয় । উপস্হিত ছিলেন বিশ্বরূপ ব্যানার্জি,দিপক ঘোষ,নিমাই ঘোষ,গৌতম ঘোষ প্রমুখ । প্রসঙ্গত,২০১১ সালে তৃণমূল সরকার গঠিত হওয়ার পরে,সিআইটিইউ করার ‘অপরাধে’ দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানা থেকে প্রায় ৪০০০ ঠিকা শ্রমিক কে শাসক দল কাজের জায়গা থেকে উচ্ছেদ করে । এই উচ্ছেদ ঠিকা শ্রমিক পরিবার গুলি অবর্ণনীয় দুঃখ-কষ্টের মধ্যে দিয়ে দিন কাটাচ্ছেন ।



নয়া শিক্ষা নীতির মাধ্যমে শিক্ষার বেসরকারীকরনের সাথে বাজারীকরন করার রাস্তা খুলবে : ডঃ মালিনী ভট্টাচার্য ।

 


দুর্গাপুর,১০ই অক্টো : আজ সন্ধ্যায় ইস্পাতনগরীর রবীন্দ্র ভবনে আয়োজিত ,”নতুন জাতীয় শিক্ষানীতি – ভারতীয় শিক্ষা ব্যবস্হায় তার প্রভাব”- শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথা বলেন প্রাক্তন সাংসদ,নারী আন্দোলনের নেত্রী ও বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ ডঃ মালিনী ভট্টাচার্য । তিনি আরও বলেন যে ‘মাল্টি ডিসিপ্লিনারি অ্যাকসানের’ নামে শিশু বয়স থেকে ছাত্র-ছাত্রীদের রোবট করে গড়ে তোলার প্রক্রিয়া তোলার কথাই হল নয়া শিক্ষা নীতির মূল নির্যাস । সরকারী শিক্ষা ব্যবস্হা ও জন শিক্ষা ব্যবস্হা থেকে সরকার কে সরিয়ে নিয়ে এসে শিক্ষা ব্যবস্হা কর্পোরেটদের মুনাফা তৈরি মৃগয়া ক্ষেত্রে পরিনত করার লক্ষ্যে মোদি সরকার রাতারাতি এই নয়া শিক্ষা নীতি নিয়ে এসেছে । এই সর্বনাশা নয়া শিক্ষা নীতি বাতিলের দাবিতে তিনি বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান ।

    এর আগে আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করে দুর্গাপুর( পূর্ব ) এর বিধায়ক সন্তোষ দেবরায় বলেন যে কেন্দ্রে বিজেপি ও রাজ্যে তৃণমূলের ফ্যাশিষ্ট কায়দায় সরকার পরিচালনার মধ্য দিয়ে ‘দমবন্ধ’ করা পরিস্হিতি তৈরি হয়ছে । কিন্তু তার মধ্যেও বিভিন্ন গন আন্দোলন গড়ে উঠেছে । রাষ্ট্রায়ত্ব ক্ষেত্র বাঁচাতে,সংবিধান রক্ষা করতে,গনতন্ত্র ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করতে বৃহত্তর ও ঐক্যবদ্ধ গন আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন হিন্দুস্হান স্টিল এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের পক্ষে বিশ্বরূপ ব্যানার্জি । অন্যান্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন পঙ্কজ রায় সরকার, নির্মল ভট্টাচার্য,মহাব্রত কুন্ডু,সীমান্ত তরফদার,রামপ্রনয় গাঙ্গুলি,সোমনাথ গাঙ্গুলি,মিতা ভট্টাচার্য প্রমুখ ।আজকের আলোচনা সভার উদ্যোক্তা ছিল পশ্চিম বঙ্গ গণতান্ত্রিক লেখক শিল্পী সংঘের ইস্পাত ২ অঞ্চল কমিটি ও পশ্চিম বঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের এ-জোন চক্র । সহযোগিতা করেছে সারা ভারত গনতান্ত্রিক মহিলা সমিতির দুর্গাপুর ইস্পাত ৩ অঞ্চল কমিটি ও ভারতের ছাত্র ফেডারেশনের দুর্গাপুর ইস্পাত শাখা ।